বগুড়া সংবাদ ডটকম (এইচ আলিম,বগুড়া সদর):  শিশু-কিশোর সাহিত্য শিল্প সংস্কৃতি বিষয়ক দ্বিমাসিক পত্রিকা ‘কুঁড়ি’ সাথে সম্পৃক্ত সকল পৃষ্ঠপোষক, শুভানুধ্যায়ী, উপদেষ্টা সম্পাদক, সম্পাদনা সহযোগী ও শিশু-কিশোর ছড়াকার-কবি-লেখকদের সমন্বয়ে এক লেখক সমাবেশ ৭ জুলাই বগুড়া শহরের ম্যাক্স মোটেল-এর কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়। কুঁড়ি’র সম্পাদক আব্দুল খালেকের স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে লেখক সমাবেশের শুরুতে সম্পাদকমন্ডির সভাপতি বিশিষ্ট কবি ও কথাশিল্পী বজলুল করিম বাহার উপস্থিত কবি সাহিত্যিক শিশু-কিশোরসহ বগুড়া কবি-সাহিত্যিদের সঙ্গে নিয়ে কুঁড়ি’র ৮ম সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন।

এরপর শিশু-কিশোর ছড়াকার ও কবি তারা তাদের লেখা ছড়া ও কবিতা পাঠ করেন। এতে বক্তব্য রাখেন কবি ও শিক্ষাবিদ বজলুল করিম বাহার, কবি ও প্রাবন্ধিক শোয়েব শাহরিয়ার, কবি নজমল হক খান, বগুড়া সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না, বগুড়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, বগুড়া ইয়ুথ কয়্যারের সভাপতি আতিকুর রহমান মিঠু, বগুড়া শিশু নাট্যদলে উপদেষ্টা জি.এম সাকলায়েন বিটুল, কুঁড়ি’র সম্পাদনা সহযোগী জিল্লুর রহমান শামীম, ছড়াকার রতন খান, কবি আজিজার রহমান তাজ, শিশু সাহিত্যিক খন্দকার বজলুর রহিম, কবি ড্যারিন পাভেজ, বগুড়া কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজের সহকারি শিক্ষক এ.কে এম আনোয়ারুল হক ও অভিভাবক আরেফা খাতুন।

শিশু সাহিত্যিকদের মধ্যে অনুভূতি ব্যক্ত করে বগুড়া ক্যন্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের সাবরিন সামান্তা ও এস.এম আলা হুমায়েদ সিক্ত, বগুড়া কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজের নিরঞ্জন কুমার দাস ও মেহেরুন নেসা, রায় মাঝিড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জেরিন আক্তার জিতু ও সুরভি আক্তার মেঘা, মিলেনিয়াম স্কলাস্টিক স্কুল এন্ড কলেজের নাফিস শাহরিয়ার। তারা বলেন, দেশের সাহিত্য চর্চার ক্ষেত্রে বগুড়া একটি উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করে আছে।

সেদিক থেকে বিবেচনা করলে দেখা যায়, শিশু-কিশোরদের সাহিত্য চর্চায় আগ্রহী ক’রে গ’ড়ে তোলার মতো উল্লেখযোগ্য কোনো সাহিত্য পত্রিকা তেমন একটা চোখে পড়ে না। তবে দীর্ঘ দিন আগে দু/একটি শিশু উপযোগী সাহিত্য পত্রিকা প্রকাশ হলেও সেগুলো দীর্ঘ দিন ধরে রাখতে পারেনি। দেশের আর দশটা জেলা শহরের মতো বগুড়ার সাহিত্যাঙ্গনেও শিশু-কিশোররা নিজেরাই নিজেদের মতো করে সাহিত্য চর্চা করে যাচ্ছে।

এক্ষেত্রে ‘কুঁড়ি’ সাহিত্য পত্রিকা শিশু-কিশোরদের কবি-সাহিত্যিক হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে যে সুযোগ-সুবিধার অভাব কিছুটা হলেও পূরণ করতে সক্ষম হয়েছে। বক্তারা ‘কুঁড়ি’র প্রকাশনা অব্যাহত রাখার জন্য সকলকে সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তারা আরো বলেন, দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে শিশু-কিশোরদের লেখাপড়ার পাশাপাশি সাহিত্য চর্চার উদ্বুদ্ধ করার মাধ্যমে প্রকৃত মানুষ করে গড়ে তোলার জন্য কুঁড়ি পত্রিকাটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন