বগুড়া সংবাদ ডট কমঃ (ইমরান হোসেন ইমন, ধুনট ): বগুড়ার ধুনটে জোড়শিমুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের জায়গা দখল করে স্থানীয় এক আওয়ামীলীগ নেতা মার্কেট নির্মান করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এবিষয়ে বিদ্যালয়ের একাধিক জমিদাতা, অভিভাবক ও এলাকাবাসী লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চিকাশী ইউনিয়নের জোড়শিমুল গ্রামের শিক্ষানুরাগি ব্যক্তি ময়েজ উদ্দিন, মোজাম্মেল হক ও আব্বাস আলী পারলক্ষিপুর মৌজার ৩০৩৬, ৩০৩৮, ৩০৩৯, ৩০৪১, ৩০৪২ ও ৩০৪৩ নং দাগে ১০১ শতক জমি রেজিঃ দলিল করে দেওয়ার পর ১৯৫২ সালে জোড়শিমুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশেই ১৯৬৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় জোড়শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়।

গত ১৯ জুন জোড়শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চিকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান কাজল বিদ্যালয়ের বাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে জোড়শিমুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে ১৫টি দোকানঘর নির্মান কাজ শুরু করেছেন।

প্রতিটি দোকানঘর ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা বরাদ্দ দিয়ে লাখ লাখ টাকা হতিয়ে নিচ্ছেন তিনি। এদিকে বিদ্যালয়ের মাঠে মার্কেট নির্মান করায় লেখাধুলা করতে পারছে না শিক্ষার্থীরা। এবিষয়ে গত ২১ জুন এলাকাবাসীর পক্ষে জোড়শিমুল গ্রামের মিজানুর রহমান, রজিব উদ্দিন, শাহিন আলম, আমজাদ হোসেন, গিয়াস উদ্দিন সহ বিদ্যালয়ের জমিদাতা, অভিভাবক ও এলাকাবাসী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুল হাসানের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তবে এবিষয়ে জোড়শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও চিকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান কাজল বলেন, জোড়শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের জায়গাতেই ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ি এক পাশে মার্কেট নির্মান করা হচ্ছে। মার্কেট থেকে যে আয় হবে তা বিদ্যালয়ের ফান্ডে জমা থাকবে। তবে বিদ্যালয়ের জায়গায় মার্কেট নির্মানে সরকারীভাবে কোন অনুমোদন নেননি তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম জানান, এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনে যদি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গায় মার্কেট নির্মানের সত্যতা পাওয়া যায় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা জানান, বিদ্যালয়ের জায়গায় মার্কেট নির্মান করা হলে অবশ্যই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন