বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে দু’দফা অভিযান চালিয়ে ১৮টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। অভিযানে আন্ত:জেলা মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের ২ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
অভিযানের প্রথম দফায় শাজাহানপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য গত ২৭ মে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার নাকাইহাট উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত জালাল সরকারের পুত্র আব্দুল মান্নানের বাড়ি থেকে ১টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। এ সময় আব্দুল মান্নানকে গ্রেফতার করা হয়। আব্দুল মান্নানের স্বীকারোক্তি মোতাবেক সাঘাটা উপজেলার পূর্ব শিমুলতাইর গ্রামের মিঠু মিয়ার পুত্র রাজু মিয়াকে গ্রেফতার করা হয় এবং সেখান থেকে ১টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। এরপর গ্রেফতারকৃত দুই জনের দেয়া তথ্য মতে একই উপজেলার কচুয়া বাজার এলাকার শিহাব এর গ্যারেজ থেকে ৭টি মোটর সাইকেল উদ্ধার হয়। একই অভিযানে সাঘাটা থানার বাংলা বাজার এলাকা থেকে ১টি এবং সাঘাটা বাজার এলাকা থেকে ১টিসহ মোট ১২টি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে গ্রেফতারকৃত ২ জনকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকেন শাজাহানপুর থানার এসআই জাহাঙ্গীর কবির। জিজ্ঞাসাবাদে বেরিয়ে আসা তথ্য মোতাবেক গ্রেফতারকৃতদের সাথে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে আবারও অভিযান পরিচালনা করেন এসআই জাহাঙ্গীর কবির। অভিযানে গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার উল্লাবাজারস্থ রাসেল নামের একজন মোটর সাইকেল মেকারের গ্যারেজ থেকে ৫টি চোরাই মোটর সাইকেল এবং বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার মাদলা ইউনিয়নের লক্ষèীকোলা গ্রামের আব্দুস সামাদ ফকিরের পুত্র রানা (২২) এর বাড়ি থেকে ১টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। দ্বিতীয় দফায় উদ্ধারকৃত মোটর সাইকেল গুলোর মধ্যে রয়েছে ৪টি সিটি-১০০সিসি মোটর সাইকেল এবং ২টি বাজাজ প্লাটিনা ১২৫সিসি মোটর সাইকেল। শাজাহানপুর থানার ওসি জিয়া লতিফুল ইসলাম জানান, গত ২ মে উপজেলার বনানী এলাকা থেকে চুরি হওয়া একটি মোটর সাইকেল উদ্ধার করতে গিয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের সন্ধান মিলে। চোর সিন্ডিকেটের ২ জনকে গ্রেফরের পরই চোরাই মোটর সাইকেলের বড় চালানের সন্ধান মিলে। উদ্ধারকৃত মোটর সাইকেলের সংবাদ পেয়ে যাদের মোটর সাইকেল খোয়া গেছে তাদের অনেকেই শাজাহানপুর থানায় ভির করছেন। কিন্তু ইঞ্জিন নং ও চেচিস নং টেম্পারিংয়ের কারণে কারও কাগজের সাথে মিলছে না। সিআইডি’র বিশেষজ্ঞদের দ্বারা টেম্পারিং করা নাম্বার থেকে আসল নাম্বার সমূহ উদ্ধার পূর্বক প্রকৃত মালিকদের কাছে মোটর সাইকেল গুলো দেয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন