বগুড়া সংবাদ ডট কম (সাগর খান আদমদীঘি প্রতিনিধি ঃ) বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা সহ আশে পাশের হাট বাজার গুলোতে অবাধে পলিথিন বিক্রি হচ্ছে। সরকার ২০০২ সালের ১লা জানুয়ারী থেকে পর্যায়ক্রমে পলিথিন ব্যাগ উৎপাদন বন্ধ করে দেয় এবং প্রয়োজনে বিকল্প হিসাবে পাটের বস্তার ব্যাগ উৎপাদনের ব্যবস্থা করে। সরকারের এ সিদ্ধান্তে সময়পযোগী বলে স্বাগত জানিয়েছিলেন ভুক্তভোগীরা। কেননা পলিথিন ব্যাগের সীমাহীন ব্যবহারে পরিবেশের উপর মারাত্মক বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে।

অপচনশীল এই দ্রব্যের ব্যাপক ব্যবহারে যত্র তত্র ফেলে দেওয়ায় বিশেষ করে পয়ঃনিষ্কাশনের বাঁধা ও পানি নিষ্কাশনের ড্রেন সমূহ বন্ধ হয়ে যায়। শুধু তাই নয় এই পলিথিন মাটির নীচে গিযে ভূমির উর্বরতা নষ্ট করে ফেলে। এভাবে চললে আগামীতে এক ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হবে বলে মনে করছেন এলাকার সচেতন মহল। দেশের সর্বত্রই এ পলিথিন ব্যবহার হচ্ছে। এবার হাত ওয়ালা ব্যাগ নয়। হাতল ছাড়াই পলিথিন ব্যাগ অধিকাংশ দোকানে ব্যবহার হচ্ছে। ক্রেতাদের অসচেতনা ও প্রশাসনের নিষ্কয়তার কারণে পলিথিন অধিকাংশ দোকানে ও বাজারে অবাধে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদেকুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, এসব পলিথিন ব্যাগ গুলি কোথা থেকে আসছে এবং নিষিদ্ধ থাকা স্বর্তেও কিভাবে সর্বত্র ব্যবহার হচ্ছে তা আমাদের বোধগম্য নয়। তিনি আরোও জানান, কিছু মোটা জাতীয় পলিথিন বিক্রয়ের অনুমতি আছে তবে পাতলা গুলো নয়। পলিথিন ব্যবহার বন্ধের যে আইন রয়েছে তা প্রয়োগ করে পলিথিন ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন