বগুড়া সংবাদ ডটকম (ইমরান হোসেন ইমন, ধুনট প্রতিনিধি:বগুড়ার ধুনটে ঝড়ো হাওয়ায় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম গামার বসতবাড়ীতে আবারও পল্লী বিদ্যুতের বৈদ্যুতিক খুঁটি হেলে পড়েছে। দীর্ঘদিন যাবত ওই বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারন না করায় ঝুঁকি নিয়েই ওই স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতার পরিবার বসবাস করে আসছে।

জানাগেছে, ধুনট বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় হেদায়েতুল ইসলাম গামার জায়গায় ২০০২ সালে ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি একটি কাঠের খুঁটির সাথে ১০০ কেবি পাওয়ার ব্যাংক স্থাপন করে। ওই পাওয়ার ব্যাংক থেকে কয়েকটি মিল ও কারখানা সহ বিভিন্ন বাড়ীতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়। ২০১২ সালে ওই বৈদ্যুতিক খুঁটির পাশেই হেদায়েতুল ইসলাম গামা বাড়ী নির্মান করে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে। কিন্তু দীর্ঘদিন যাবত ওই বৈদ্যুতিক খুঁটি মেরামত না করায় ২০১৬ সালে ওই বৈদ্যুতিক খুঁটি হেলে পড়ে অগুন ধরে যায়। বুধবার সকালে ঝড়ো হাওয়ায় আবারও ওই বৈদ্যুতিক খুটিটি বাড়ীর ওপর হেলে পড়েছে।

এবিষয়ে ধুনট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম গামা বলেন, আমার বসতবাড়ীর পাশেই পল্লী বিদ্যুতের ১০০ কেবি পাওয়ার ব্যাংক সহ একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। তাই খুঁটিটি অপসরান করে পাশ্ববর্তী স্থানে পুনস্থাপনের জন্য আবেদন করেছি। কিন্তু দীর্ঘদিনেও বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারন না করায় আবারও বাড়ীর ওপর হেলে পড়েছে। এতে যে কোন মূহুর্তে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। কিন্তু তারপরও জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করতে হচ্ছে।

ধুনট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম বিজয় কুন্ডু জানান, বৈদ্যুতিক খুঁটি হেলে পড়ার সংবাদ শুনে আপাতত খুঁটি টানা দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে ওই খুঁটিটি সরকারী খরচে অপসারন করে পার্শ¦বর্তী স্থানে পুনস্থাপন করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন