বগুড়া সংবাদ ডট কম (রাহেনূর ইসলাম স্বাধীন, সারিয়াকান্দি  প্রতিনিধি ): রাত ২:৪৫ মিনিট তখন ঘড়ির কাটায় সময়। ফোনের অপর পাশে থেকে- “আসসালামুআলাইকুম, সেহেরীর সময় হয়েগেছে, আমরা আর ঘুমিয়ে না থেকে নিজে উঠি অপরকে জাগিয়ে তুলি”। এরকম কথায় ভেসে আসছিলো বগুড়ার সারিয়াকান্দির ইন্টার ২য় বর্ষেও ছাত্র উজ্জল মিয়ার ফোনে। সে রাতে পড়া-শোনা করে ঘুমিয়েছিলো, যদি ফোনটা না আসতো সে সেদিনের রোযা টা হয়তবা মিস করে ফেলতো।

সারিয়াকান্দি ফেসবুক ফ্রেন্ডস এ্যাসোশিয়েনের সাধারন সম্পাদক মোঃ রাহেনূর ইসলাম স্বাধীন ও উক্ত সংগঠনের আরও বেশকিছু সদস্যরা সেচ্ছাশ্রমে তাঁদের ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে উপজেলার সিরিয়ালকৃত নাম্বারগুলোতে ফোন করে মুসল্লিদের সেহেরীর জন্য জাগিয়ে তোলেন ।

এবিষয়ে সংগঠনের সাধারন সম্পাদক আরও বলেন, আমরা সেহেরীর সময় অনেকে ঘুমিয়ে থাকি এক্ষেত্রে আমাদের সবার উচিৎ ফোনে এ্যালার্ম দিয়ে রাখা। আমার ফোন নাম্বার এর শেষে ২৩৩ আর এই সিমটি আমি সারিয়াকান্দি থেকেই কিনেছি, এখন আমি যদি এই শেষের ডিজিট টি পরিবর্তন করে কল দিই তাহলে এই কলটা সারিয়াকান্দিরই কোন ব্যাক্তির কাছে যাওয়ার সম্ভবনা বেশি। আমরা এরকম করেই সাধারন মানুষের কাছে ফোন কল করছি এবং এসএমএস দিচ্ছি। কারন এটা একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের দ্বায়িত্ব বলে মনে করি।
এরকম উদ্দ্যেগ কে সাধুবাদ জানিয়েছেন সাধারন মুসল্লি সহ সারিয়াকান্দি উপজেলার বিশিষ্ঠজনরা।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন