bograsangbad_Logoবগুড়া সংবাদ ডটকম (কাহালু প্রতিনিধি এম এ মতিন) : সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন কাহালু উপজেলার জামগ্রাম ইউনিয়নের সোনারপাড়া গ্রামের মৃতঃ মগরেব আলীর পুত্র মাসুম মন্ডল। তিনি বলেন, সোনারপাড়া গ্রামের আফছার আলীর পুত্র উজ্জ্বল মায়ের ঔষধ আনার জন্য জামগ্রাম বাজারে যাওয়ার পথে রাস্তার উপর ইউ পি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম কামাল তার লোকজন উজ্জ্বলকে মারপিট করে থানায় দেয়। সোনারপাড়া গ্রামের আবুল খায়ের মারা যাওয়ায় তার নিজ জায়গা পারিবারিক কবরাস্থানে তাকে দাফন করতে গেলে ইউ পি চেয়ারম্যান তাকে দাফন করতে বাধা প্রদান করে। তিনি আরও বলেন, জামগ্রাম ইউ পি সদস্য বেলাল হোসেনের লোহারপাড়া ও লয়াপাড়া গ্রামে ঘটে যাওয়া নারী কেলেংকারী ও অসামাজিক কার্যকলাপের প্রতিবাদ করতে গেলে ইউ পি চেয়ারম্যানের হুমকি, মামলার ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের ভয়ে তিনি ২ মাস পর বাড়ীতে আসেন। গত ২৮/০৮/১৭ইং তারিখে জামগ্রাম বাজারে গেলে ইউ পি চেয়ারম্যান তার সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা তাকে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে মারপিট করে থানায় সোপর্দ করে। বৃহস্পতিবার উপজেলার জামগ্রামে সরেজমিনে গিয়ে এলাকার প্রায় ২ শতাধিক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করলে তারা জানান, সোনারপাড়া গ্রামের মৃতঃ মগরেব আলীর পুত্র মাসুম মন্ডলকে এলাকায় এক নামে পুতুল ব্যবসায়ী হিসেবে সবায় জানে ও চিনে। সোনারপাড়ার আফছার আলীর পুত্র উজ্জ্বল সর্ম্পকে কথা বললে তারা জানান, উজ্জ্বল একজন নেশাখোর ছেলে ইউ পি চেয়ারম্যান তাকে গাঁজা সহ থানায় দেয়। সোনারপাড়া গ্রামের আবুল খায়েরের দাফন সর্ম্পকে এলাকাবাসী ও জামগ্রামে অবস্থিত বাংলা গ্রো এর প্রেজেষ্ট ম্যানেজার (ইনচার্জ) শফিকুল ইসলাম (মনির) এর সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, আবুল খায়ের সহ তার পরিবারের লোকজন বাংলা গ্রো এর নিকট জমাজমি সহ কবরাস্থানের জায়গা বিক্রি করেছে। বাংলা গ্রো এর প্রেজেষ্ট ম্যানেজার (ইনচার্জ) হিসেবে আমি তাদেরকে ভিতরে নতুন করে কবর না দিয়ে অন্য কোন জায়গা তারা দেখিয়ে দিলে আমরা জায়গা ভরাট সহ কবরাস্থান ঘিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করবো। ইউ পি চেয়ারম্যান সেই দিন বলেছেন যে, আপনারা জায়গা বিক্রি করেছেন সেহেতু বাংলা গ্রো এর কর্তৃপক্ষের সাথে ঝগড়া বিবাদ না হয় এর বেশী কিছু তিনি বলেননি। জামগ্রাম ইউ পি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম (কামাল) বলেন, আমি যদি এলাকায় মানুষের উপর নির্যাতন, অত্যাচার ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালায় তাহলে আমাকে প্রশাসন ধরে নিয়ে যাবে এবং আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এলাকার চিহিৃত পুতুল ব্যবসায়ী মাসুম মন্ডল আমার বিরুদ্ধে যে, অভিযোগ করেছে সেগুলো অভিযোগ উদঘাটন করে সত্য ঘটনা পত্রিকায় প্রকাশ করার জন্য অনুরোধ করেন। কাহালু থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী এর সাথে কথা বলা হলে তিনি বলেন, থানায় মাসুম মন্ডলের নামে নকল সোনার পুতুল প্রতারণা ও চাঁদাবাজী মামলা রয়েছে। বুধবার কাহালুতে সাংবাদিকদের সাথে সংবাদ সম্মেলন করেন উপজেলার জামগ্রাম ইউনিয়নের সোনারপাড়া গ্রামের মৃতঃ মগরেব আলীর পুত্র চিহিৃত পুতুল ব্যবসায়ী মাসুম মন্ডল। চিহিৃত পুতুল ব্যবসায়ীর সংবাদ সম্মেলনে দ্বারাই মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জামগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি প্রভাষক মনোয়ার হোসেন (খোকন), সাধারণ সম্পাদক ও দ্বারাই মাদ্রাসার অফিস সহকারি মাসুদ রানা উপস্থিত থাকায় তাদের ব্যাপক সমলোচনা করছেন ইউনিয়নের সচেতন মানুষ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন