বগুড়া সংবাদ ডটকম (এম আই মিরাজ, বগুড়া): বগুড়া পৌরসভার অন্তর্গত ১৫ নং ওয়ার্ডের গোদারপাড়া বাজারের রাস্তাটির বর্তমান অবস্থা খুবই চরম। রাস্তাটি দিন দিন মৃত্যৃ ফাঁদে পরিণত হচ্ছে।ফলে প্রতিনিয়ত ছোট খাটো সড়ক দূর্ঘটনার ঘটছে। উল্লেখ্য, গত ২ মাস আগে গ্যাস পরিবহনে নিয়োজিত গাড়ির ধাক্কায় নিহত হন বগুড়া সদরের শিকারপুর গ্রামের ১ মটর সাইকেল আরোহী। বগুড়া-নওগাঁ মহাসড়কের প্রধান সড়ক এই রাস্তাটি।

একজন ড্রাইভার জানান, এই সমস্যা দীর্ঘ ৩ বছরের।রাস্তাটি বৃষ্টির সময় ছোট নদীতে রুপান্তরিত হয়ে যায়। প্রতিদিনের গাড়ি চালাতে গিয়ে ধাক্কায় কোমর ব্যাধা ধরে যায়, রাস্তাটির খালখন্ডে। প্রতিদিন প্রভাবশালী মহল মটর শ্রমিক সংগঠনের নাম ভাঙিয়ে রাস্তায় চাঁদাবাজি করে। সরকার যদি রাস্তাটির উন্নয়নের জন্য বরাদ্দ না দেয়, তাহলে, প্রতিদিন অনেকগুলো মটর শ্রমিক নেতাদের চাঁদা দিতে হয়।

তাছাড়া নতুন যে কোনো গাড়ি, যেমন: ব্যাটারী চালিত অটো, সি এন জি, বাস, ট্রাক রাস্তায় চলার জন্য ভর্তি করতে হয়। গাড়ি ভর্তি করার জন্য গরিব ড্রাইভারদের দিতে হয় লাগামহীন টাকা। প্রতিদিন টাকা তো দিতে হবেই। এদিকে বগুড়া পৌরসভার মেয়র-২ ও ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: আমিনুল ইসলাম জানান, সরকার আমাদের রাস্তাটির জন্য বরাদ্দ দেন না।

যে ছোটো অংকের টাকা অনুদানে দেয়া হয় তা আমাদের এলাকার কাজের চাহিদার বহিরে।এলাকাবাসী এবং যাত্রীদের দাবী, কমলমতি শিক্ষার্থীদের চলাচল এবং সড়ক দূর্ঘটনা দূর করার জন্য বগুড়া পৌর কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি,এই রাস্তটি বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের রাস্তা। এটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা, এখানে জাহিদুর রহমান মহিলা কলেজ, ছয়পুকুরিয়া বালিকা স্কুল এন্ড কলেজ, এবং দারুলহুদা ইন্ট: ক্যাডেট মাদ্রাসা ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কল-কারখানা অবস্থিত।

কমলমতি শিক্ষার্থীদের চলাচল এবং সড়ক দূর্ঘটনা দূর করার জন্য বগুড়া পৌর কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসীর জোর দাবি, রাস্তাটির দ্রুত সংস্কারের।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন