বগুড়া সংবাদ ডট কম (শাজাহানপুর প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান) : বগুড়ার শাজাহানপুরে দূর্নীতিগ্রস্ত এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে প্রধানমন্ত্রি বরাবর স্মারকলিপি প্রধান করা হয়েছে। উপজেলার আমরুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান অটলের বিরুদ্ধে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে আমরুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুর রশিদ টুকু, ওবায়দুর রহমান ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের স্বাক্ষরিত ওই স্মারকলিপি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রি বরাবর প্রদান করা হয়েছে।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান অটল ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে গত ইউপি নির্বাচনে আমরুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। চেয়ারম্যান হওয়ার পর থেকে সরকারী বরাদ্দ একের পর এক অনিয়মের মাধ্যমে আত্মসাৎ করে বর্তমান আওয়ামী সরকারের উপর দোষ চাপাচ্ছেন। ইতোমধ্যেই চেয়ারম্যানের দূর্নীতির ২১ চিত্র তুলে ধরে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট পৃথক দু’টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে অজ্ঞাত কারণে তদন্তের কোন অগ্রগতি হয়নি। স্মারকলিপিতে আরো উল্লেখ করা হয় যে, চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অটল প্রকৃত দরিদ্রদের ভিজিডি কার্ড না দিয়ে স্বচ্ছল ও জামায়-বিএনপি সমর্থিতদেরকে দিয়েছেন। চেয়ারম্যানের জোগসাজসে কার্ডধারীরা কুরবানী ঈদের কয়েকদিন আগে ভিজিডি চাল পাচারের সময় স্থানীয় জনগন হাতে নাতে ধরে ফেলেন। খবর পেয়ে ইউএনও এসে চাল জব্দ করেন এবং তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। আমরুল ইউনিয়নের হাফিজার রহমান ওরফে ভোলা ওরফে রাসেল ১৯৯৪ সালের দিকে তুরস্কে বাংলাদেশী এক সেনা কর্মকর্তা স্বপরিবারে হত্যা মামলায় গ্রেফতার হন। পরবর্তিতে তুরস্ক থেকে পাকিস্তানে পালিয়ে যান। বর্তমানে সে পাকিস্তানে কারাগারে আটক আছেন। চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অটল পাকিস্তানে আটক হাফিজার রহমান ওরফে ভোলা ওরফে রাসেলকে পৃথক ২টি নামে এবং ভিন্ন ভিন্ন ওয়ার্ডের জন্মস্থান দেখিয়ে অসত্য তথ্য দিয়ে নাগরিকত্ব ও চারিত্রিক সনদ এবং প্রত্যয়ন পত্র দিয়েছেন। এছাড়াও ইউনিয়ন পরিষদের কাউকে দায়িত্ব না দিয়ে গত ১ বছরে অন্তত ৬ বার ভারত ভ্রমন করেছেন। প্রত্যেকটি ঘটনা অভিযোগে উল্লেখ করা হলেও এবং বিভিন্ন গনমাধ্যমে তা প্রচার করা হলেও অজ্ঞাত কারণে প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করে আসছে। স্মারকলিপিতে আরো বলা হয়েছে যে, চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অটল প্রচার করে বেরাচ্ছেন আওয়ামীলীগ সরকার খারাপ। দেশ লুটে পুটে খাচ্ছে শেখ হাসিনা। পরিষদে উন্নয়নের জন্য সরকার কোন বরাদ্দ দিচ্ছেনা। কিন্তু আমরা জানি বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রি শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এবং পিছিয়ে পড়া গ্রামীন জনগোষ্ঠিকে এগিয়ে নিতে যথেষ্ট অর্থ বরাদ্দ দিয়ে আসছেন। এমতাবস্থায় চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অটলের অপপ্রচার ও দূর্নীতির কারণে আওয়ামীলীগ সরকারের ভাবমর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
ইউএনও মোঃ কামরুজ্জামান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপিটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রেরণ করা হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন