বগুড়া সংবাদ ডট কম(ডাঃ মোঃ সামির হোসেন):জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ (২-৮ এপ্রিল) ও ক্ষুদে ডাক্তার শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। সকালে বগুড়া শহরের সুবিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সুবিল উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনায় এই কার্যক্রম শুরু হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ সামির হোসেন মিশু। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শামসুল হক। প্রধান অতিথি বলেন, শিশুদের শারিরীক ও মানসিক বিকাশে কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও নিয়মিত ভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষার উপর গুরুত্ব আরোপ করতে হবে। অভিভাবকদেরও সচেতন হতে হবে। প্রতিটি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে গঠিত প্রশিক্ষিত ক্ষুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ ও শিক্ষার্থীদের নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে থাকে। বগুড়া সদর উপজেলার স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের তত্ত্বাবধানে এবং শিক্ষকদের সহযোগিতায় ক্ষুদে ডাক্তারগন উক্ত উপজেলার ১২ থেকে ১৬ বছরের ৭৫ হাজার শিশুকে সপ্তাহব্যাপী কৃমিনাশক ট্যাবলেট (মেবেন্ডাজল ৫০০ মিঃগ্রাঃ) সেবন করাবেন এবং তাদের উচ্চতা, ওজন এবং দৃষ্টি শক্তি পরীক্ষা করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বগুড়া সদরের সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ তমাল হোসেন, বগুড়া সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ গোলাম মাহবুব মোর্শেদ, বগুড়া সদরের গোকুল উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সৈকত মোঃ রেজওয়ানুল হক, বুড়িগঞ্জ উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডাঃ রেজওয়ানা শাহীন, সুবিল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ গোলাম রহমান সুবিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মোছাঃ মাহমুদা বেগম, স্বাস্থ্য পরিদর্শকমোঃ আব্দুল বারী, স্যানিটারী ইন্সক্টের ভুপেন্দ্র নাথ রায়, বগুড়া সদরের মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ইপিআই) মোতাহার হোসেন প্রমুখ।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন