বগুড়া সংবাদ ডট কম(ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন ): বগুড়ার ধুনটে স্ত্রী সন্তান রেখে আবারও শালিকাকে নিয়ে পালিয়েছে সেই লম্পট দুলাভাই। রবিবার সন্ধায় ধুনট সদরপাড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে।
মামলা ও স্থানীয়সূত্রে জানাগেছে, ধুনট উপজেলার নিমগাছী গ্রামের মোখলেছার রহমানের ছেলে আব্দুল হাকিমের (৩৫) সাথে প্রায় ৯বছর আগে একই গ্রামের প্রবাসী লাল বাহাদুরের মেয়ে নাজলী খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে নাফিজ (৬) নামের এক ছেলে ও নাফিজা (৪) নামের এক মেয়ে সন্তান রয়েছে। কিন্তু ২০১৭ সালের ৮ অক্টোবর আব্দুল হাকিম স্ত্রী নাজলী খাতুনকে নির্যাতন করে দুই সন্তান সহ বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দেয়। একপর্যায়ে গত ১৩ অক্টোবর আব্দুল হাকিম তার স্ত্রীর ছোট বোন নাজমীন আক্তারকে অপহরন নিয়ে যায়। এঘটনায় নাজমীন আকতারের মা জুলেখা বেগম বাদী হয়ে বগুড়ার আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ নাজমীন আকতারকে উদ্ধার করলেও আব্দুল হাকিম পালিয়ে যায়। গত এক মাস আগে ওই মামলায় উচ্চ আদালত থেকে আব্দুল হাকিম জামিনে বের হয়ে এসেই মামলার বাদী তার শাশুড়ী ও তার স্ত্রীকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। একারনে তার স্ত্রী নাজলী খাতুন, তার দুই সন্তান নাফিজ ও নাফিজা সহ তার শাশুড়ী জুলখা বেগম ও শালিকা নাজমীন আক্তার এক মাস যাবত ধুনট সদরপাড়া এলাকার সুলতান মাহমুদ নামের এক আত্বীয়র বাড়ীতে আশ্রয় নেয়। রবিবার সন্ধায় আব্দুল হাকিম তার লোকজন নিয়ে সদরপাড়া এলাকার সুলতান মাহমুদের বাড়ী থেকে তার শালিকাকে আবারও অপহরন করে নিয়ে যায়।
ধুনট সদরপাড়া এলাকার সুলতান মাহমুদ জানান, আব্দুল হাকিমের ভয়ে তার শাশুড়ী, স্ত্রী, তার সন্তান ও শালিকা আমার বাড়ীতে আশ্রয় নিয়েছিল। কিন্তু বাড়ীতে কেউ না থাকায় আমার বাড়ী থেকে নগদ ৩ লাখ ৭৫ হাজার ও স্বার্ণালংকার লুটপাট করে আব্দুল হাকিম তার শালিকাকে আবারও অপহরন করে নিয়ে গেছে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন