বগুড়া সংবাদ ডট কম (ধুনট প্রতিনিধি ইমরান হোসেন ইমন) : বগুড়ার ধুনটে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের সংর্ঘষে ৪জন আহত হয়েছে। আহতদের ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলো, উপজেলার গোসাইবাড়ী ইউনিয়নের বাকশাপাড়া গ্রামের গোলাম রব্বানীর ছেলে মোফাজ্জল হোসেন (২৪), তার স্ত্রী শাহার বানু (৪০), মৃত আব্দুল বেপারীর ছেলে গোলজার হোসেন (৬৫) ও একই গ্রামের মৃত কোরবান আলীর ছেলে শাহাজাহান আলী (৫০)। আহতদের ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় শনিবার উভয়পক্ষ থানায় পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, উপজেলার গোসাইবাড়ী ইউনিয়নের বাকশা পাড়া মধ্য পাড়া গ্রামের গোলাম রব্বানীর বাড়ীর সীমানা নিয়ে প্রতিবেশি শাহজাহান আলীর দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। শুক্রবার বিকাল ৫টায় গোলাম রব্বানী তার বাড়ীর সীমানায় টিনের বেড়া দিয়ে ঘিরে রাখে। এতে প্রতিবেশি শাহজাহান আলী ও তার লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে গোলাম রব্বানীর বসতবাড়ীতে হামলা চালিয়ে টিনের বেড়া ভাংচুর করতে থাকে। এসময় গোলাম রব্বানী ও তার পরিবারের লোকজন তাদেরকে বাঁধা দিতে গেলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ বাধে। এতে উভয়পক্ষের ৪জন আহত হয়েছে।
গোলাম রব্বানীর ভাতিজা সাইদুজ্জামান নোমান বলেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরে শাহজাহান আলী, আবু শহিদ, চপল মিয়া, লিখন মিয়া সহ ৬/৭জন হামলা চালিয়ে টিনের বেড়া ভাংচুর করে গোলাম রব্বানীর ছেলে মোফাজ্জল হোসেনের মাথা ফাটিয়ে আহত করেছে। এসময় প্রতিপক্ষরা মোফাজ্জল হোসেনের মা শাহার বানু ও তার চাচা গোলজার হোসেনকেও পিটিয়ে আহত করে।
তবে শাহজাহান আলী বলেন, তারাই আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে আমাকে মারধর করেছে।
ধুনট থানার এসআই শাহীন জানান, এবিষয়ে দুইপক্ষই পাল্টাপাল্টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন