বগুড়া সংবাদ ডট কম(আদমদীঘি প্রতিনিধি সাগর খান): বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের অবস্থিত ও পার্শ্ববর্তী নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার পুর্বঞ্চলের ২৫ গ্রামের প্রায় লাখো মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য সান্তাহারে রক্তদহ বিলের সান্দিড়া-বোদলা খেয়াঘাটে একটি ব্রীজ করা হলেই এই অঞ্চলের মানুষেন দুঃখ-দূর্দশা থেকে মুক্তি পাবে এবং ব্যাবসা ব্যানিজ্যের ক্ষেত্রে ভাগ্যের দুয়ার খুলে যাবে। কমে যাবে তাদের ২৫ কিলোমিটার রাস্তা। সহজ হবে সর্ব সাধারনের যাতায়াত ব্যবস্থা।
জানা যায়, প্রতিদিন রক্তদহ বিল পাড়ের ২৫/৩০ গ্রামসহ এর আশপাশ এলাকার প্রায় লাখো মানুষ শত শত বছর ধরে সাধারণ নৌকায় পারাপার হয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ দৈনন্দিন জীবনের নানা চাহিদা মেটানোর জন্য নওগাঁ জেলা সদর, বগুড়ার সান্তাহার শহর, রাজশাহী ও রাজধানী ঢাকা সহ দেশের অন্যান্য শহরের সাথে একমাত্র যোগাযোগ ব্যাবস্থা এই খেয়াঘাট। বর্ষা মৌসুম শুরু হলেই ভুক্তভুগিদের মাঝে নেমে আসে চরম দুর্ভোগ দুর্দশা। পারের নৌকার জন্য অপেক্ষা করতে হয় ঘন্টার পর ঘন্টা। ফলে সময় মত নিদির্ষ্ট স্থানে সময়মত পৌছাতে পারে না কেহ। অনেকে পাড়ের নৌকার অপেক্ষা না করে জীবনের ঝুকি নিয়ে সাঁতার দিয়ে এই বিল পার হয়ে থাকে। এতে প্রাণহানীর ঘটনা ও ঘটে। খড়া মেীসুমি থাকে হাটু পানি তখন নেীকা চলে না। এ অবস্থা থেকে উত্তোরনের জন্য ভুক্তভুগিরা স্থানীয় এমপি ও মন্ত্রীদের দ্বারস্থ হয়েও কোন ফল পাচ্ছে না। নির্বাচন এলেই এলাকার চেয়ারম্যান ও এমপি প্রার্থীরা উক্ত খেয়াঘাটে ব্রীজ করার প্রতিশ্রতি দেন এবং পরক্ষণে প্রতিশ্রতি বাস্তবায়ন করে না কেহ। রাস্তা ঘাট ব্রীজ, কালভাটসহ সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন করা হলেও শত বছরের দুর্ভোগের শিকার মানুষগুলোর কোন পরিবর্তন হচ্ছে না। এ ব্যাপারে বোদলা গ্রামের হিটলার বলেন বর্তমান সরকার পদ্মা সেতু করে প্রমান করেছে দেশে যোগাযোগ ব্যাবস্থার কতটা উন্নয়ন হচ্ছে। দীর্ঘদিনের আমাদের এই সমস্যা স্থানীয় এমপি কে অবগত করা হয়েছে আশা রাখি বর্তমান সরকরের সময়ই আমরা একটি ব্রীজ পাবো।
এ বিষয়ে রানীনগর উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার সাইফুল মিয়ার সাথে কথা বললে তিনি বলেন ব্রীজের জন্য আবেদন পাঠানো হয়েছে আগামী ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ব্রীজ টি বরাদ্দ হবে। এ বিষয়ে রানীনগর-আত্রাই এলাকার সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন ওই এলাকার মানুষের দাবি পুরন হতে আর বেশী সময় লাগবে না খুব অল্প সময়ের মধ্যে হবে। আদমদীঘি-দুঁপচাচিয়া এলাকার সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম তালুকদারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন চেষ্টা করা হচ্ছে স্থানীয় ইঞ্জিনিয়ার প্রকল্প দিলে কাজ হবে।

Facebook Comments (ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুন)

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
আপনার নাম লিখুন